আপনি একজন introvert নাকি extrovert

আপনি একজন introvert নাকি extrovert

আপনি কী কোনদিন ভেবে দেখেছেন আপনি একজন introvert নাকি extrovert?

আপনি যদি অন্যান্য মানুষের মত হয়ে থাকেন তাহলে চান্সেস বেশি আপনি এই ব্যাপারে কখন ও না কখনও ভেবে থাকবেন।

কিন্তু বেশিরভাগ মানুষের মধ্যে একটা ভুল ধারনা রয়েছে introvert extrovert হওয়ার মানে টা কী। অনেকে মনে করে আপনি যদি সবসময় বই পড়েন তাহলে আপনি introvert, এবং আপনি যদি বেশিরভাগ সময় পার্টি নাচানাচি হই হুল্লোড় করেন তাহলে আপনি extrovert.

কিন্তু এই ব্যাপারে যেটা আসল সত্যি সেটা জানতে হলে আমাদের কিছুটা গভীর এ ঢুকতে হবে। তবেই আমরা এই ব্যাপার টা বুঝতে পারবো।

বেশিরভাগ মানুষ এটাই জানেনা আমরা introvert বা extrovert চিনবো কীভাবে।তাদের মনে কিছুটা idea থাকে।

Table of Contents

আমি আপনাদের সবচেয়ে সহজ একটা পদ্ধতি বলছি, যার দ্বারা আপনি খুব সহজে বুঝতে পারবেন আপনি একজন introvert নাকি extrovert.

একটা কথা ভাবুন যখন আপনি হাপিয়ে যান, মনে করুন আপনার এক সপ্তাহ ধরে পরীক্ষা চলছে। ও তারপর আপনি কিছুদিন ছুটি পান। এই সময়ে আপনি কীভাবে থাকেন বা থাকতে পছন্দ করেন।

আপনি কী এই সময়ে বই পড়েন, কিংবা একা একা show দেখেন, নাকিবচান এইসময় আপনি বাইরে বন্ধুদের সাৎে কাটান এবং অনেক পার্টি করুন।

introvert লোকেরা মাত্র একা বা দুই তিনজন মানুষের সাথে মিশতে পছন্দ করে। আর এভাবেই নিজেকে রাখতে পছন্দ করে।

যেখানে extrovert লোকেরা অনেক মানুষের সাথে সময় কাটাতে পছন্দ করে। বাহিরে গিয়ে excited কিছু করা যেমন মজা করা, পার্টি করা, বন্ধুদের সাথে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে ফান করা।

আর introvert এবং extrovert হওয়ার মূল কারন হলো তার ব্রেনের গঠন। study তে দেখা গেছে introvert মানুষের ব্রেনে বড় prefrontal cortex থাকে।

Introvert

যেটা ব্রেনের সামনের একটি পার্ট। ব্রেইন এর সেই পার্ট যেখানে ডিপ চিন্তা করার সক্ষমতা থাকে। এইজন্যই introvert মানুষরা ইঞ্জিনিয়ারিং ফিলোসোফি বিষয় গুলো পছন্দ করে।

Extrovert এর ব্রেনে থাকে ডোপামিন রিসেপ্টর। তারা positive emotion অনেক বেশি feel করতে পারে। মনে করুন আপনি কোন গ্রুপ অফ ফ্রেন্ডের মধ্যে আছেন।

আর সেখানে কোন আলোচনা চলছে। আর একজন extrovert এর ব্রেন ডোপামিন বেশি রিলিজ করে, আর এটা সেই ব্যাক্তি টিকে আরো বেশি খুশি করে দেয়।

আর অন্যদিকে introvert মানুষদের ডোপামিন রিসেপ্টর কম থাকে, তাদের মধ্যে নেগেটিভ ইমোশন বেশি থাকে যার ফলে ডিপ্রেশনে যাওয়ার চান্স থাকে।

বেশিরভাগ মানুষ ভেবে থাকে একটা থেকে অন্য টা বেশি ভালো। কিছু মানুষ মনে করে introvert হওয়া অনেক ভালো। introvert রা অনেক গভীরভাবে চিন্তা ভাবনা করতে পারে। আবার কিছু মানুষ  মনে করে extrovert রাও অনেক ভালো এদের অনেক বন্ধু থাকে এবং এরা লাইফে অনেক enjoy করতে পারে।

কিন্তু আসল কথা হলো দুইজনের ওই একান্ত কিছু week necks আছে। introvert লোক নিজের কথা ও বাইরের মানুষের কথা চিন্তা করে ঠিকি কিন্তু হতে পারে তারা অতোটা socialize হয় না। এটা একটা সমস্যা যার কারনে এদের বেশি বন্ধু বান্ধব থাকে না।

আর হ্যা extrovert দের অনেক বন্ধু থাকে, এবং তারা exciting অনেক কিছুই করে। কিন্তু তারা যতদিন বসে গভীর চিন্তা ভাবনা না করবে ততদিন সে তার লাইফে বড় সিদ্ধান্ত নিতে পারবে না।

কারন সে সেই ব্যাপারে গভীর ভাবে চিন্তাই করতে পারে না।

আর সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ কথা, যেটা আপনি জানেন না সেটা হলো বেশিরভাগ মানুষি ১০০ % ইন্ট্রভার্ট বা এক্সট্রভার্ট হয় না। maximum মানুষের মাঝামাঝিতে অবস্তান করে আর সেই ক্যাটাগরিকে Ambiverse বলা হয়।

আর এই বিষয়ের উপর চিন্তা করার সবচেয়ে ভালো উপায় হলো আপনি এটাকে একটা স্কেলের মতো মনে করুন, একটা স্পেকটার্ম হয়ে থাকে introvert থাকে extrovert দের। আর বেশিরভাগ মানুষ এই spectrum এর মাঝামাঝি তে পড়ে।

আর যদি আপনি আমার সম্পর্কে জানতে চান তাহলে আমি মাসুদুর Ambiverse এর মধ্যে পড়ি। যেমন আমি প্রতিদিন আমার নিজস্ব রুটিন অনুযায়ী চলাফেরা করি, সবার সাথে মিশে পার্টি হই হুল্লোড় ও করি আবার, কখনো একান্তে নিজের জন্য সময় কাটাই এভাবেই চলছি খুশি আছি।

আপনি হয়তো ভাবছেন এই বিষয় নিয়ে লেখার কারন কী,  আমার এখন কী করা উচিৎ আমি introvert বা extrovert হই। যাতে আমি নিজেকে improve করতে পারি।

তো আমি আপনাদের কে বলবো আপনি যদি একজন introvert হোন তাহলে আপনাকে এমন কিছু skill বা কোয়ালিটি ডেভেলপ করতে হবে যা extrovert দের থাকে।

যা আপনাদের লাইফে সুন্দর ভাবে জীবন গড়তে সাহায্য করবে। হতে পারে নিজেকে পুশ করতে হবে, মানুষের সাথে কথা বলার জন্য, বাইরে যাওয়ার জন্য, বিভিন্ন একটিভিটিতে অংশ নেয়ার জন্য, আর এইগুলো আপনাকে well maintained মানুষ হিসেবে গড়ে তুলবে।

 

আর আপনি যদি একজন extrovert মানুষ হন তাহলে আপনাকে introvert এর কিছু কোয়ালিটি আপনার মধ্যে নিয়ে আসতে হবে। অতিরিক্ত সময় বন্ধুদের সাথে না কাটিয়ে, কিছুটা সময় কাটিয়ে নিজেই একান্তে নিজেকে নিয়ে গভীর চিন্তা করুন আপনি কি করতে চান বা করবেন, সারাদিন কী করলেন তা ভাবুন,  পয়েনৃট এটা নয় আপনি নিজেকে সম্পূন্য বদলে ফেলুন।

আপনি যদি introvert হন তখন আপনাকে একা থাকতে মন করবে। আর যদি extrovert হোন তাহলে আপনাকে বাইরে যেতেই মন করবে। আমি এখানে এটাই বলতে চাইছি,  নিজেকে ব্যালেন্স করা উচিৎ, যা আপনার জীবনকে ফুলফিল করে তুলবে এবং আপনি জীবনে অনেককিছু অর্জন করতে পারবেন।

এখন আপনি আমাদের বলুন আপনি একজন introvert, extrovert নাকি Ambiverse কমেন্ট করে অবশ্যই বলুন।

আরও পড়ুন >>

পড়াশোনায় মনোযোগী হওয়ার উপায়

সুন্দর করে কথা বলে মানুষের মন জয় করার টিপস

admin

admin

My name is Md Masudur Rahman. I’m a believer, I’m a dreamer and I’m a doer. I am well known in content creation, Presentation & Leadership skill. I can speak very well both in Bengali and English.

Related post

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।